Home / সেক্স লাইফ / যে দুটি সেক্স পজিশনে মেয়েরা সহজে অরগাজম পায়

যে দুটি সেক্স পজিশনে মেয়েরা সহজে অরগাজম পায়

আশা করি সবাই ভাল আছেন। আজ আপনাদের মাঝে অরেকটি আর্টিকেল নিয়ে হাজির হলাম। আজ আপনাদের জানাবো যে দুটি সেক্স পজিশনে মেয়েরা সহজে অরগাজম পায় তা নিয়ে। এই দুটি সেক্স পজিশন বেশ জনপ্রিয়। পজিশন গুলোতে মেয়েরা বেশ মজা নিতে পারে।যে দুটি সেক্স পজিশনে মেয়েরা সহজে অরগাজম পায়

যে দুটি সেক্স পজিশনে মেয়েরা সহজে অরগাজম পায়

আসুন জেনে নেওয়া যাক : –

ডগি স্টাইলঃ এই আসনটি মেয়েদের জন্যে খুবই উপযুক্ত কারন এতে মেয়েটি তার ইচ্ছামত সেক্সের সময় মুভমেন্ট করতে পারে, পেনিস কে তার যোনির ভিতর ইচ্ছামত নাড়াচাড়া করিয়ে নিতে পারে । যৌনক্রিয়ার বেগও নিজের ইচ্ছামত নিয়ন্ত্রন করতে পারে । এর সাথে সাথে পুরুষের সুবিধা হচ্ছে সে ইচ্ছামত খুব সহজে নারীর ””জি স্পট”’ এ স্পর্শ করতে পারে এবং হাত দিয়ে নারীর ক্লাইটরিস বা ভগ্নাংকুরে ঘর্ষণ করে নারীকে ইচ্ছামত মজা দিতে পারে । নারী নিজেও নিজের ভগ্নাংকুরে ইচ্ছামত হাত দিয়ে ঘর্ষণ করতে পারে । এতে নারীর খুব দ্রুত অরগাজম হতে পারে । কৌশল খুবই সাধারনঃ

১. মেয়ে দুই হাত এবং দুই হাঁটুর উপর ভর করে উপুড় হবে । চারপেয়ে প্রাণীর মত ।

২. পুরুষ পিছনে দুই বা এক হাঁটুর উপর ভর করে দাঁড়াবে ।

৩. পুরুষ এক বা দুই হাতে নারীর কোমর জড়িয়ে ধরবে ।

৫. এবার পুরুষাঙ্গ যোনির মধ্যে প্রবেশ করান ।

৪. এরপর দুজনই দুজনের সাথে মিল রেখে সামনে পিছনে কোমর দোলাতে শুরু করবে ।

৫. মাঝে মাঝে স্পিড বাড়ান আবার মাঝে মাঝে কমিয়ে দিন । এতে সেনসেশন বেশি হবে ।

৬. পুরুষ বা নারী এক হাতে ভগ্নাংকুর বা ক্লাইটরিসে ঘর্ষণ করুন । এতে সেনসেশন দ্বিগুণ হয়ে যাবে ।

গার্ল অন টপঃ এই পদ্ধতি রিভার্স কাউগার্ল পদ্ধতির মতই । কিন্তু এই পদ্ধতিতে নারীর মুখ আর পুরুষের মুখ একই দিকে থাকবে । এই পদ্ধতির সবচে বড় সুবিধা হল ভগ্নাঙ্কুর বা ক্লাইটরিস এ খুব সহজে পেনিস স্পর্শ

করতে এবং ঘষা খেতে পারে । এজন্যে মেয়ের অরগাজম(Orgasm) খুব তাড়াতাড়ি আসে ।কিভাবে করবেন জেনে নিনঃ

১. প্রথমে পা ছড়িয়ে বসুন বা শুয়ে পড়ুন ।

২. এরপর আপনার মেয়ে সঙ্গীকে আপনার উপরে বসান । সে হাঁটু গেড়ে পা ভাজ করে বসবে ।

৩. মেয়ের মুখ আপনার মুখের দিকে থাকবে ।

৪. পুরুষাঙ্গ(Penis) যোনিতে প্রবেশ করান ।

৫. এবার মেয়ে ঘোড়া চড়ার ভঙ্গিতে উঠানামা করবে ।

৬. আপনিও নিচে থেকে উপরের দিকে পুশ (Push) দিন ।

৭. মেয়ের প্রথমদিকে উঠানামা করতে অসুবিধা হতে প সেক্ষেত্রে আপনি তার হিপ (Hip) পশ্চাৎদেশ ধরে তাকে উঠানামা করতে সাহায্য করুন । কিছুক্ষন পরেই দেখবেন ছন্দ চলে এসেছে ।

ভাল থাকুন, সুস্থ থাকুন, নিজেকে এবং পরিবারকে ভালোবাসুন। আমাদের লেখা আপনার কেমন লাগছে ও আপনার যদি কোনো প্রশ্ন থাকে তবে নিচে কমেন্ট করে জানান। আপনার বন্ধুদের কাছে পোস্টটি পৌঁছে দিতে দয়া করে শেয়ার করুন। পুরো পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।

Check Also

লিঙ্গের আকার কি সত্যিই গুরুত্বপূর্ণ

লিঙ্গের আকার কি সত্যিই গুরুত্বপূর্ণ

আশা করি সবাই ভাল আছেন। আজ আপনাদের মাঝে অরেকটি আর্টিকেল নিয়ে হাজির হলাম। আজ আপনাদের ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *