Home / লাইফস্টাইল / গোপনাঙ্গ থেকে লোম দূর করার উপায় জেনে নিন

গোপনাঙ্গ থেকে লোম দূর করার উপায় জেনে নিন

আশা করি সবাই ভাল আছেন। আজ আপনাদের মাঝে অরেকটি আর্টিকেল নিয়ে হাজির হলাম। আজ আপনাদের জানাবো গোপনাঙ্গ থেকে লোম দূর করার উপায় সম্পর্কে। গোপনাঙ্গ থেকে লোম তোলার জন্য অনেক ঘরোয়া উপায় রয়েছে। কিন্তু এইসব উপায় অবলম্বন করার আগে আপনার লোম একটু ছোট করে নেওয়া ভালো। ঘরোয়া ওয়াক্স পদ্ধতি প্রয়োগ করার আগেও আপনার ওই অংশের চুল একটু ছোট করে নিন। আপনার এই ধরনের জিনিসে এলার্জি (Allergy) আছে কিনা সেটাও একবার দেখে নেওয়া উচিত।গোপনাঙ্গ থেকে লোম দূর করার উপায় জেনে নিন

গোপনাঙ্গ থেকে লোম দূর করার উপায় জেনে নিন

চিনির মিশ্রন দিয়ে গোপনাঙ্গের লোম দূর করুন

একটি বাটিতে ৩ টেবিলচামচ চিনি, ১ টেবিলচামচ মধু ও পাতিলেবুর রস নিয়ে ভালো করে মেশান। এই মিশ্রন আপনার গোপনাঙ্গের লোমের উপর লাগান এবং ওই অংশের লোমকে নরম করুন। এইবার ওয়াক্স স্ট্রিপ নিয়ে ওই অংশে লাগান। যেইদিকে আপনার চুলের বৃদ্ধি হয় তার উল্টোদিক করে স্ট্রিপটি টানুন। আপনার অবাঞ্ছিত লোম উঠে আসবে। এটি অবাঞ্ছিত লোম তলার শ্রেষ্ঠ ঘরোয়া উপায়।

যৌনাঙ্গের লোম দূর করতে বেসন

আপনার গোপনাঙ্গের চুল ছোট করার পর ওই অংশে বেসন লাগান। এক কাপ জলে বেসন গুলে তার সাথে এক ফোঁটা নুন মিশিয়ে নিয়মিত ওই অংশে লাগান এবং বেসন শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন। গোপনাঙ্গে চুলের বৃদ্ধি কমানোর এটি একটি ধীর পদ্ধতি কিন্তু এর কোনো পার্শপ্রতিক্রিয়া নেই।

গোপনাঙ্গের লোম তলার জন্য এলোভেরা ওয়াক্স

এলোভেরার সাথে মধু মিশিয়ে গরম করুন। উষ্ণ গরম হলে লোমযুক্ত অংশে লাগান। এইবার একটি ওয়াক্স স্ট্রিপ নিয়ে ওই স্থানে লাগান এবং চুল যেদিকে বৃদ্ধি পায় তার বিপরীত দিকে টানুন। ঘরোয়া উপায় ওয়াক্স করার জন্য এটি খুবই সহজ এবং স্বাস্থ্যকর একটি পদ্ধতি।

পাতিলেবু এবং মধু আপনার গোপনাঙ্গের ওয়াক্স হিসেবে কাজ করে 

আপনার গোপনাঙ্গে যদি ফুসকুড়ি বা গোটা হওয়ার প্রবণতা থাকে তাহলে ওই স্থানে পাতিলেবু ব্যবহার করুন। একটি বাটিতে মধু ও পাতিলেবার রস মিশিয়ে গরম করুন। এটি ওয়াক্স হিসেবে কাজ করে। প্রথমবার সেভ করার পর এই ওয়াক্স খুব ভালোভাবে কাজ করে।

গোপনাঙ্গের চুল পরিষ্কার করতে মধু এবং ওটমিল

অবাঞ্ছিত লোম দূর করার এটিও একটি ভালো উপায়। মধু এবং ওটমিল মিশিয়ে মিশ্রণটি গরম করুন। এই মিশ্রন ঘরোয়া ওয়াক্স হিসেবে ব্যবহার করুন এবং আপনার গোপনাঙ্গ পরিষ্কার রাখুন।

যৌনাঙ্গের লোম তোলার জন্য কলা এবং ওটমিল স্ক্রাবের ব্যবহার

শুষ্ক ত্বকের(Dry skin) জন্য কলা সবচেয়ে উপযোগী। কলা অবাঞ্ছিত লোম তুলে সেই অংশকে কোমল বানায়। ত্বকের মরা কোষ দূর করার জন্য ওটমিল ব্যবহার করুন এবং বাকি পদ্ধতির জন্য এর সাথে কলা মেশান। ওটমিল প্রাকৃতিক ক্লিনসার (Cleanser) রূপে কাজ করে এবং ব্যবহারের পর ত্বককে সুন্দর করে তোলে। একটি পাকা কলার সঙ্গে ২ চা চামচ ওটমিল মেশান। আগে কলাটি চটকে নিয়ে তারসাথে ওটমিল যোগ করুন। ভালো করে মিশিয়ে এই মিশ্রন উপযুক্ত জায়গায় বৃত্তাকার গতিতে (Circular motion) লাগান। তারপর জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। প্রতি সপ্তাহে একবার এটি করুন।

এলাম এবং গোলাপজল দিয়ে অবাঞ্ছিত লোম তুলুন 

ভারত ও পাকিস্থানের মহিলারা অবাঞ্ছিত লোম তোলার জন্য এই পদ্ধতি বহুলভাবে ব্যবহার করে। এলাম পাথররূপে বা পাউডার হিসেবে পাওয়া যায়। এটিকে গ্রাইন্ড করে পাউডার বানিয়ে নেওয়াও যেতে পারে। আধা চামচ এলাম পাউডারের সাথে ৩ টেবিলচামচ গোলাপজল মেশান। বাটিতে আগে এলাম পাউডার নিয়ে তার পরে গোলাপ জল মেশান। ভালো করে মিশিয়ে এই মিশ্রনে তুলো ভিজিয়ে উপযুক্ত স্থানে লাগান। ১৫ মিনিট রেখে জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন এবং ময়স্চারায়জিং-এর জন্য অল্প অলিভ অয়েল লাগান।

গোপনাঙ্গের লোম দূর করার জন্য আলু ও মসুর ডাল

আয়ুর্বেদ অনুযায়ী আলু প্রাকৃতিক ব্লিচ (Bleach)হিসেবে কাজ করে। আলুর সাথে মসুর ডাল মেশালে সেই মিশ্রন অবাঞ্ছিত লোম তুলতে সাহায্য করে। মসুর ডাল সারারাত জলে ভিজিয়ে রাখুন। সকালে ওই ভেজানো ডাল গ্রাইন্ড করে পেস্ট (Paste) বানিয়ে নিন। এবার একটি খোসা ছাড়ানো ও চটকানো আলু নিয়ে একবাটি ডালবাটার সাথে মেশান। এর সাথে ১ টেবিলচামচ মধু(Honey) ও ৪ টেবিলচামচ পাতিলেবুর রস মেশান। এই মিশ্রন লাগিয়ে ২০ মিনিট রাখুন। এটি শুকাতে দিন এবং আপনার অবাঞ্ছিত লোম তুলে ফেলুন। ভালো ফল পেতে ৭ দিনের মধ্যে এই পদ্ধতির পুনরাবৃত্তি করুন।

তাহলে আপনি জানতে পারলেন যে আমাদের গোপনাঙ্গের অবাঞ্ছিত লোম তলার জন্য অনেক উপায় আছে। আপনার কাছে প্রাকৃতিক(Natural) এবং প্রচলিত হাজার রকমের উপায় রয়েছে। আপনাকে শুধু নিজের সুবিধামত সঠিক উপায়টি বেছে নিতে হবে। যদি আপনি সম্পূর্ণ গোপনভাবে লোম তুলতে চান তাহলে সেভিং বা ক্রিম ব্যবহার করাটাই সবথেকে উপযুক্ত হবে। কিন্তু যদি আপনি আরো ভালো ফল পেতে চান তাহলে যেকোনো সালন (Salon) থেকে ওয়াক্সিং করিয়ে নিন। বাইরে করতে না চাইলে বাড়িতেও আপনি ওয়াক্সিং করতে পারেন।

আর আপনি যদি সম্পূর্ণভাবে কোনরকম ব্যথা ছাড়াই গোপনাঙ্গের লোম তুলতে চান তাহলে লেসার ট্রিটমেন্ট হলো আপনার জন্য উপযুক্ত।

ভাল থাকুন, সুস্থ থাকুন, নিজেকে এবং পরিবারকে ভালোবাসুন। আমাদের লেখা আপনার কেমন লাগছে ও আপনার যদি কোনো প্রশ্ন থাকে তবে নিচে কমেন্ট করে জানান। আপনার বন্ধুদের কাছে পোস্টটি পৌঁছে দিতে দয়া করে শেয়ার করুন। পুরো পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।

Check Also

ত্রিশের পরে নারীরা শরীর ফিট রাখবেন যেভাবে

ত্রিশের পরে নারীরা শরীর ফিট রাখবেন যেভাবে

আশা করি সবাই ভাল আছেন। আজ আপনাদের মাঝে অরেকটি আর্টিকেল নিয়ে হাজির হলাম। আজ আপনাদের ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *