Home / ত্বকের যত্ন / মসৃণ ত্বকের জন্য ঘরোয়া টোটকা ব্যবহার

মসৃণ ত্বকের জন্য ঘরোয়া টোটকা ব্যবহার

আশা করি সবাই ভাল আছেন। আজ আপনাদের মাঝে অরেকটি আর্টিকেল নিয়ে হাজির হলাম। আজ আপনাদের জানাবো মসৃণ ত্বকের(Skin) জন্য ঘরোয়া টোটকা ব্যবহার সম্পর্কে। দূষণ ও অস্বাস্থ্যকর(Unhealthy) জীবনযাত্রার কারণে ত্বক মলিন ও নির্জীব হয়ে পড়ে। নিয়মিত প্রাকৃতিক(Natural) উপাদান ব্যবহারের মাধ্যমে ত্বকের(Skin) কোমল ও মসৃণভাব ফিরিয়ে আনা সম্ভব।মসৃণ ত্বকের জন্য ঘরোয়া টোটকা ব্যবহার

মসৃণ ত্বকের জন্য ঘরোয়া টোটকা ব্যবহার

পানি পান: প্রতিদিন কমপক্ষে আট গ্লাস পানি(Water) পান করা নিশ্চিত করুন। এটা শরীরকে আর্দ্র রাখে এবং শরীর(Body) থেকে বিষাক্ত পদার্থ বের করে দিতে সহায়তা করে।

লেবুর রস: একটা ডিমের সাদা অংশের সঙ্গে লেবুর রস মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে মুখে মেখে শুকানোরে জন্য দশ মিনিট অপেক্ষা করুন। এরপর তা কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ(Face) ধুয়ে নিন। সপ্তাহে দুবার ব্যবহারে ভালো ফলাফল পাওয়া যায়।

টমেটো: একটা টমেটো ব্লেন্ড করে পেস্ট তৈরি করে নিন। পেস্টটি মুখে মেখে দশ মিনিট অপেক্ষা করে ধুয়ে ফেলুন। টমেটো ত্বকের মসৃণ ও উজ্জ্বল(Bright) করতে সহায়তা করে।

মধু: খাঁটি মধু(Honey) মুখে মেখে দশ মিনিট অপেক্ষা করুন। এরপর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন। মধু ত্বক কোমল ও মসৃণ রাখতে সহায়ক ভূমিকা পালন করে।

টি ট্রি অয়েল: তুলার বলের সাহায্যে টি ট্রি অয়েল সরাসরি ত্বকে(Skin) মাখুন। ভালো ফলাফল চাইলে কয়েক ঘণ্টা পর পর ব্যবহার করতে পারেন। টি ট্রি তেল ব্রণ প্রবণ ত্বকেকে সুস্থ ও মসৃণ করতে ভূমিকা পালন করে।

অ্যালো ভেরা: অ্যালো ভেরার পাতায় থাকা জেল সপ্তাহে বেশ কয়েকবার ত্বকে ব্যবহার করা ভালো। নিয়মিত ব্যবহারে ত্বক কোমল ও মসৃণ হয়ে ওঠে।

শসা: শসার(Cucumber) প্যাক তৈরি করতে দুই টেবিল-চামচ ওটমিল, ব্লেন্ড করা অর্ধেকটা শসার রস ও সামান্য দুধ(Milk) মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। মাস্কটি মুখ ও গলায় মেখে শুকানো পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। বিশ মিনিট পরে মুখ সাধারণ পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

পেঁপে: কয়েক টুকরা পাকা পেঁপে পিষে মিহি করে নিন। এরপর তা মুখে প্যাকের মতো করে মেখে অপেক্ষা করুন। ১৫ মিনিট পরে কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন। নিয়মিত ব্যবহারে ত্বক কোমল ও মসৃণ হয়।

হলুদ: এক চা চামচ হলুদ, দুই চা-চামচ চন্দনের গুঁড়া ও পর্যাপ্ত পানি মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। প্যাকটি মুখে মেখে শুকানো পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। তারপর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ত্বক(Skin) পরিষ্কার করে নিন।

ভাল থাকুন, সুস্থ থাকুন, নিজেকে এবং পরিবারকে ভালোবাসুন। আমাদের লেখা আপনার কেমন লাগছে ও আপনার যদি কোনো প্রশ্ন থাকে তবে নিচে কমেন্ট করে জানান। আপনার বন্ধুদের কাছে পোস্টটি পৌঁছে দিতে দয়া করে শেয়ার করুন। পুরো পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।

Check Also

ব্রণ সমস্যা চিরতরে দূর করার জাদুকরী কিছু উপায়

ব্রণ সমস্যা চিরতরে দূর করার জাদুকরী কিছু উপায়

আশাকরি সবাই ভাল আছেন। আজ আপনাদের জানাবো ব্রণ সমস্যা চিরতরে দূর করার জাদুকরী কিছু উপায় ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *