Home / ভেষজ উদ্ভিদ / অপরাজিতা গাছের উপকারিতা গুলো জেনে নিন

অপরাজিতা গাছের উপকারিতা গুলো জেনে নিন

আশা করি সবাই ভাল আছেন। আজ আপনাদের মাঝে অরেকটি আর্টিকেল নিয়ে হাজির হলাম। আজ আপনাদের জানাবো অপরাজিতা গাছের উপকারিতা গুলো সম্পর্কে। ফুলের ভেতর অন্যতম একটি ফুল হচ্ছে অপরাজিতা। এই ফুল(Flowers) দেখতে খুবই সুন্দর। এটি লতানো গাছে সবুজ পাতার কোলে এক টুকরো প্রগাঢ় নীলের সম্ভাষণ ভালোলাগার অনুভূতিকে নিমিষেই ছুয়ে যায়। ফুলে কোনো গন্ধ নেই, তবু রঙের বাহার আর মিষ্টি শোভায় অনন্য সে অফরাজিতা। এর গাঢ় নীল ফুলটিকে ডাকা হয় নীলকন্ঠ নামে । নীল ছাড়া চোখে পড়ে সাদা এবং হালকা বেগুনি রঙের ফুল। ফুলের(Flowers) ভেতরের দিকটা সাদা বা ঈষৎ হলুদ রঙের হয়ে থাকে। সাধারণত গাছের ডাল বর্ষাকালে স্যাতসেতে মাটিতে রোপন করতে হয়, ছোট ছোট ধূসর ও কালো বর্ণের বিচি রোদ শুকিয়ে নরম মাটিতে রোপন করতে হয়। ঝোপজাতীয় গাছে প্রায় সারা বছর ফুল ফোটে। বহুবর্ষ্জীবী এ লতা ২০ ফুট পর্য্ন্ত লম্বা হয়। আমাদের দেশে নীল, সাদা, কদাচিৎ বেগুনি রঙের অপরাজিতা ফুল দেখা যায়। লতাজাতীয় গাছে এক পাপড়ি ও দুই স্তর পাপড়িতে এই ফুল হয়। আমরা এর নীল রঙের বৈভবে মুগ্ধ কিন্তু অপরাজিতা নামটি ও সুপ্রাচীন ও মাধুর্যে অজেয় বা অদ্বিতীয়া। অপরাজিতা কেবল সেীন্দর্যে নয় ঔষধি গুণেও অতুলনীয়।

অপরাজিতা গাছের উপকারিতা গুলো জেনে নিন

উপকারিতা:
অপরাজিতার মূলের সাথে ৫/৬ গ্রাম পরিমাণ ঘি মিশিয়ৈ শিলে পিষে অল্প মধু(Honey) দিয়ে সকাল বিকাল টানা সাত দিন খেলে গলগন্ড রোগ ভাল হয়ে যায়।

শরীরের(Body) কোন স্থান ফুলে গেলে ওই স্থানে নীল অপরাজিতার পাতা মূল সহ বেটে অল্প গরম করে লাগালে ফুলাভাব কমে যায়। ফুলাভাব না কমা পর্য্ন্ত লাগিয়ে রাখতে হবে।

শিশু অথবা বয়স্ক যারা ঘন ঘন প্রস্রাব করে এই ক্ষেত্রে সাদা বা নীল অপরাজিতা গাছের মূল সহ রস করে এক চা চামচ প্রত্যেকদিন দুই বার একটু সামান্য দুধ(Milk) মিশিয়ে সকাল বিকাল এক সপ্তাহ খেলে উপকার পাওয়া যায়।

ঠান্ডাজনিত কারণে গলার স্বর ভেঙ্গে গেলে অপরাজিত গাছের লতানো পাতা ১০ গ্রাম পরিমাণে নিয়ে ৪/৫ কাপ পানিতে(Water) সিদ্ধ করতে হবে । সিদ্ধ পানি এক কাপ থাকা অবস্থায় নামিয়ে ছেকে ৪/৫ দিন ৩/৪ বার ১৫ মিনিট গারগোল করলে স্বর ভালো হয়ে যায়।

অপরাজিতা মূলের রস এক চা চামচ আধা কাপ অল্প গরম পানিতে(Hot water) মিশিয়ে সেই পানি ১০/১৫ মিনিট মুখে রেখে সাত দিনে তিন বার গারগেল করলে শুষ্ক কাশি ভালো হয়ে যায়।

সুস্থ থাকুন, নিজেকে এবং পরিবারকে ভালোবাসুন। আমাদের লেখা আপনার কেমন লাগছে ও আপনার যদি কোনো প্রশ্ন থাকে তবে নিচে কমেন্ট করে জানান। আপনার বন্ধুদের কাছে পোস্টটি পৌঁছে দিতে দয়া করে শেয়ার করুন।পুরো পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।

Check Also

লজ্জাবতী গাছের গুণাগুণ জেনে নিন

আশা করি সবাই ভাল আছেন। আজ আপনাদের মাঝে অরেকটি আর্টিকেল নিয়ে হাজির হলাম। আজ আপনাদের ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *