Home / ভেষজ উদ্ভিদ / কলমি শাকের স্বাস্থ্য গুণাগুণ

কলমি শাকের স্বাস্থ্য গুণাগুণ

আশা করি সবাই ভাল আছেন। আজ আপনাদের মাঝে অরেকটি আর্টিকেল নিয়ে হাজির হলাম। আজ আপনাদের জানাবো কলমি শাকের স্বাস্থ্য(Health) গুণাগুণ সম্পর্কে। যদি কারো ফোড়া হয় তাহলে কলমি পাতা বেটে এর চার পাশে লাগাতে হবে এবং মাঝখানে ফাকা রাখতে হবে । এভাবে তিন চার দিন লাগালে পুজ গলে ফোড়া শুকিয়ে যাবে ।

কলমি শাকের স্বাস্থ্য গুণাগুণ

রাত কানা রোগ(Disease) হলে কলমি শাক পাতা প্রতিদিন এক বেলা ভাজি করে খেলে রাতকানা রোগ ভালো হয় ।এভাবে এটা দুই থেকে তিন সপ্তাহ খেতে হবে ।

মায়ের বুকের দুধ কম আসলে কলমি শাক ছোট মাছ(Fish) দিয়ে রান্না করে খেলে মায়ের বুকের দুধ বাড়বে ।

কোষ্ঠকাঠিন্য(Constipation) হলে কলমি শাক বেটে এক কাপ রসের সাথে আখের গুড় মিশিয়ে এক সপ্তাহ খেলে ভালো ফল(Fruits) পাওয়া যাবে ।

গনেরিয়া রোগ হলে প্রসাবে জ্বালা যন্ত্রনা করে । এটা হলে কলমি শাক বেটে তিন থেকে চার চা চামচ তিন সপ্তাহ খেলে এই জ্বালা কমে যাবে ।

হাত পা জ্বালা পোড়া করলে কলমি শাকের রসের সাথে একটু মধু(Honey) মিশিয়ে খেলে ভালে উপকার পাওয়া যায় ।

পিপড়া, মৌমাছি সহ কোন কীট কামড়ালে কলমি শাকের ডগা সহ রস করে লাগালে সেরে যাবে ।

আমাশয় হলে কলমি শাকের রসের সথে আখের রসের সাথে সকাল বিকাল রস করে খেলে আমশয় ভালো হয় ।

সুস্থ থাকুন, নিজেকে এবং পরিবারকে ভালোবাসুন। আমাদের লেখা আপনার কেমন লাগছে ও আপনার যদি কোনো প্রশ্ন থাকে তবে নিচে কমেন্ট করে জানান। আপনার বন্ধুদের কাছে পোস্টটি পৌঁছে দিতে দয়া করে শেয়ার করুন। পুরো পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।

Check Also

লজ্জাবতী গাছের গুণাগুণ জেনে নিন

আশা করি সবাই ভাল আছেন। আজ আপনাদের মাঝে অরেকটি আর্টিকেল নিয়ে হাজির হলাম। আজ আপনাদের ...

One comment

  1. viagra posted viagra cheap overnight buy viagra craigslist toronto

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *