Home / স্বাস্থ্য টিপস / শীতকালে সুস্থ থাকার উপায়!

শীতকালে সুস্থ থাকার উপায়!

আশা করি সবাই ভাল আছেন। আজ আপনাদের মাঝে অরেকটি আর্টিকেল নিয়ে হাজির হলাম। আজ আপনাদের জানাবো শীতকালে(Winter) সুস্থ থাকার কিছু উপায় নিয়ে। শীতকালে সুস্থ(Healthy) থাকতে কে না চান? একটু নিয়ম মেনে চলে থাকলে শীত হয় আরামদায়ক(Comfortable)।

শীতকালে সুস্থ থাকার উপায়!

তাহলে মেনে চলতে পারেন এই ৭টি নিয়ম:

১. শীতকালে(Winter) শরীরের ওজন(Weight) বৃদ্ধি করা যায় খুব সহজেই। তাই আপনাদের মধ্যে যারা খুব রোগা আছেন তারা বেশি করে খাবার(Food) খান। তবে যারা মোটা তারা অবশ্যই এই সময় খাবারটা ডায়েট করে খাবেন। কারণ আপনি অতিরিক্ত মোটা(Fat) হয়ে যেতে পারেন

২. শীতে বাইরে বের হওয়ার সময় অবশ্যই হাতে গ্লাভস পরে বের হবেন। কারণ শরীরের(Body) হিট গুলো হাতের মাধ্যমে বেড়িয়ে যায়। তাই হাতের গ্লাভস শরীরকে গরম রাখতে সাহায্য করবে।

৩. আমরা অনেকেই মনে করি যে শীতে ঠাণ্ডা আবহাওয়ায়(Weather) বাড়ির বাইরে বের হলে আমাদের শরীর হয়ত খারাপ করবে। তবে আপনি জানেন কি? ঠান্ডাতে আমাদের শরীরের ইমিউনিটি পাওয়ার অনেক বেড়ে যায় ফলে শরীর খারাপ হবার সম্ভাবনা অনেক কম থাকে।

৪. এই সময় সকালে বা দুপুরে কাজে বের হওয়ার সময় সানস ক্রিম মেখে যাওয়ার চেষ্টা করবেন। কারণ শীতকালে(Winter) সূর্য পৃথিবীর অনেক কাছে চলে আসে। আর তাই এই সময় ৮০ শতাংশ ক্ষতিকারক রে আমাদের স্কিনের ক্ষতি করতে পারে।

৫. শীতকালে শরীরকে গরম করতে অনেকেই মদ্য পান করে থাকে। কিন্তু আপনি জানেন কি, মদ্য শুধু আমাদের শরীরের ত্বককে(Skin) গরম করে এবং শরীরের ভিতরের হিট আস্তে আস্তে কমিয়ে দেয়। মদ্য পান না করাই ভালো হবে।

৬. শীতকালে(Winter) আমাদের পানির তৃষ্ণা খুব কম পায়। তাই গরমকালের তুলনায় শীতকালে(Winter) পানি(Water) খাওয়ার পরিমাণ অনেক কমে যায়। কিন্তু শরীর ঠিক রাখতে গেলে আমাদের প্রতিদিন অন্তত্য পক্ষে ২ লিটার পানি খাওয়া আবশ্যক। না খেলে ডিহাইড্রেশনের সমস্যা দেখা দিতে পারে। এছাড়া কিডনির সমস্যা, হজমের(Digestion) সমস্যা প্রভৃতিও দেখা দেয়। তাই পানি তৃষ্ণা না পেলেও কিছু সময়ের ব্যবধানে বেশি করে পানি(Water) খান। এতে দেখবেন শীতকালে শরীরের কোনও সমস্যাই দেখতে পাওয়া যাবে না।

৭. শীতকালে(Winter) ঠাণ্ডার হাত থেকে বাঁচতে আমরা অনেক গরম জামা পরি। কিন্তু প্রয়োজনের থেকে বেশি গরম জামা পরার ফলে আমাদের শরীরের ভেতরে ঘাম(Sweat) হয়ে যায়। যার জন্য ঠাণ্ডার লাগার সমস্যাও দেখা দেয়। তাই বেশি গরম জামা না পরে ঠাণ্ডা লাগার হাত থেকে বাঁচতে যেটুকু দরকার সেইটুকু পরাই উচিত।

সুস্থ থাকুন, নিজেকে এবং পরিবারকে ভালোবাসুন। আমাদের লেখা আপনার কেমন লাগছে ও আপনার যদি কোনো প্রশ্ন থাকে তবে নিচে কমেন্ট করে জানান। আপনার বন্ধুদের কাছে পোস্টটি পৌঁছে দিতে দয়া করে শেয়ার করুন। পুরো পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।

Check Also

খালি পেটে গরম পানি পানে যে জটিল সমস্যার সমাধান হবে

আশা করি সবাই ভাল আছেন। আজ আপনাদের মাঝে অরেকটি আর্টিকেল নিয়ে হাজির হলাম। আজ আপনাদের ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *